বিরামপুরে চাংপাই চাইনিজ রেস্টুরেন্টের দোতলার আবাসিক থেকে তিন জোড়া কপোত-কপোতি আটক

বিরামপুরে চাংপাই চাইনিজ রেস্টুরেন্টের দোতলার আবাসিক থেকে তিন জোড়া কপোত-কপোতি আটক

মোঃ সামিউল আলম, বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি-
দিনাজপুরের বিরামপুর পৌর শহরের ঢাকা মোড়ে অবস্থিত চাংপাই চাইনিজ রেস্টুরেন্ট ও ফাস্ট ফুড এর দোতালায় আবাসিক হোটেল রাজ ভিলাস থেকে শুক্রবার গভীর রাতে তিন জোড়া কপোত-কপোতিকে আটক করেছে থানা পুলিশ।
জানা গেছে, তথাকথিত সাংবাদিক মোরশেদ মানিক এর মালিকানাধীন উক্ত আবাসিক হোটেলে এক রাতের জন‍্য প্রত‍্যেক রুম ১৫’শ টাকায় ভাড়ায় শুক্রবার রাতে তিন জোড়া কপোত-কপোতি এসে ওঠে। তবে নিয়মানুযায়ী হোটেলের রেজিষ্ট্রার খাতায় তাদের কারো নাম-পরিচয় লিপিবদ্ধ করা হয়নি। এমনকি তাদের কারো পরিচয় পত্রের ফটোকপিও নেওয়া হয়নি। এদের মধ‍্যে এক জোড়া ছিলেন প্রাপ্ত বয়স্ক যুবক-যুবতী ও দুই জোড়া ছিলেন অপ্রাপ্ত বয়স্ক কিশোর-কিশোরী।
স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ এসে রেজিষ্টার খাতায় কারো নাম- পরিচয় লিপিবদ্ধ না থাকায় ও পরিচয় সনাক্ত না হওয়ায় হোটেল মালিক মোরশেদ মানিক সহ ৭ জনকে আটক করে থানায় নিয়ে যান।
তথাকথিত সাংবাদিকতার আড়ালে অবৈধ প্রভাব খাটিয়ে মোরশেদ মানিক নিয়মিত ওই আবাসিক হোটেলে দেহ ব‍্যবসা চালিয়ে আসছেন বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। এছাড়াও তারই মালিকানাধীন চাংপাই চাইনিজ রেস্টুরেন্টে প্রায়ই স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা এসে অসামাজিক কার্যকলাপ চালায় বলেও অভিযোগ রয়েছে। আটককৃতদের মধ‍্যে অপ্রাপ্ত বয়স্ক দুই জোড়া কিশোর-কিশোরী আগেও হোটেলটিতে রাত্রি যাপন করেছেন বলে তারা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে বিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামান মনির জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে অভিবাবকের জিম্মায় তাদেরকে তুলে দেওয়া হয় এবং হোটেল মালিক মোরশেদ মানিককে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। আগামীতে যাতে এ ধরনের কার্যকলাপ আর না ঘটে সেদিকে বিশেষ নজর দেওয়া হবে এবং প্রতিটি আবাসিক হোটেলে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করা হবে।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazartvsite-01713478536