যশোরে স্কুল ছাত্রী অপহরনের ১১ দিন পর ভারতীয় সীমান্ত থেকে উদ্ধার: আটক এক

যশোরে স্কুল ছাত্রী অপহরনের ১১ দিন পর ভারতীয় সীমান্ত থেকে উদ্ধার: আটক এক

নিলয় ধর,যশোর:- য়শোর মণিরামপুরে ৮-ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে অপহরনের ১১ দিন পর বৃহস্পতিবার(১১ মে) রাতে শার্শা উপজেলার ভারতীয় সিমান্তের এক ইটভাটার ঘর থেকে পুলিশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় বাকির হোসেন জাকির নামে এক ভাটা শ্রমিককে আটক করে।
এ ব্যাপারে স্কুল ছাত্রীর পিতা বাদি হয়ে বাকির হোসেন জাকিরের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো দুইজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পুলিশ শুক্রবার দুপুরে বাকিরকে আদালতে সোপর্দ করে।
আটক বাকির হোসেন জাকির নারায়নগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার উপজেলার বান্টি গ্রামের মৃত আবদুল আজিজের ছেলে। সে শার্শা উপজেলায় ভাটা শ্রমিকের কাজ করতো। মামলার তদন্তকারী অফিসার (এসআই) আশরাফুল আলম জানিয়েছেন, মনিরামপুর উপজেলার দূর্বাডাঙ্গা ইউনিয়নের এক স্কুল শিক্ষকের মেয়ে ৮ ম শ্রেণির ছাত্রী তুচ্ছ ১টি বিষয় নিয়ে মায়ের উপর অভিমান করে (৩ জুন) সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফেরেনি।
সম্ভাব্য সব স্থানে খোঁজাখুজি করেও তার কোন সন্ধ্যান না পেয়ে ৫ জুন থানায় ১টি জিডি করেন ছাত্রীর বাবা ( হিন্দু সম্প্রদায়)
(৯ জুন) রাতে ওই ছাত্রী অপরিচিত একটি মোবাইলফোন নম্বর থেকে তার বাবাকে মোবাইল করে জানায় তাকে ৩জন যুবক অপহরন করে একটি ইটভাটার ঘরে আটকিয়ে রেখেছে। মনিরামপুর থানার (এসআই) তপন কুমার সিংহ জানিয়েছে, এই খবর জানতে পেরে ওই মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে তার নেতৃত্বে পুলিশের ১টি টিম বৃহস্পতিবার(১১ জুন) বিকেলে শার্শা উপজেলায় রওনা হন।
 রাত ১০ টার দিকে উপজেলার ভারতীয় সিমান্ত খামারপাড়া গ্রামের জেএএবি ইটভাটায় অভিযান চালিয়ে ১টি ঘর থেকে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়েছে। এই সময় সেখান থেকে আটক করা হয় বাকির হোসেন জাকির নামে এক ভাটা শ্রমিককে। মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই আশরাফুল আলম জানিয়েছেন, উদ্ধারকরা ওই ছাত্রী জানিয়েছে, (৩ জুন) সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে সে এক নিকট আত্বিয়ের বাড়ি যাবার জন্য মনিরামপুর পৌরশহরের মোহনপুর বটতলা মোড়ে বাসের অপেক্ষায় ছিল। এই সময় তার সাথে পরিচয় হয় বাকির হোসেন জাকির এবং অপর দুই যুবকের সাথে।
এক পর্যায়ে তারা ওই ছাত্রীকে ফুসলিয়ে বাসে করে নিয়ে যায় খুলনার পাইকগাছা উপজেলায়। সেখানে একটি ঘরে তাকে তিনদিন আটকিয়ে রাখা হয়। পরে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় যশোরের শার্শা উপজেলার খামারপাড়া গ্রামের জেএএপি ইটভাটায়। ওই ছাত্রী জানায় ইটভাটার একটি ঘরে তাকে আটকিয়ে রেখে বাকির হোসেন জাকির তার সাথে খারাপ আচরণ করে। (১১ জুন) রাতে পুলিশ সেখান থেকে ছাত্রীকে উদ্ধার করে।
মনিরামপুর থানার ওসি(তদন্ত) শিকদার মতিয়ার রহমান জানিয়েছেন, এই ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা স্কুল শিক্ষক বাদি হয়ে বাকির হোসেন জাকিরের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ২ ব্যক্তির নামে বৃহস্পতিবার রাতে মামলা করেছেন। শুক্রবার(১২ জুন) দুপুরে পুলিশ বাকিরকে আদালতে সোপর্দ করে। আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরনের নির্দেশ দেন। অন্যদিকে ওই ছাত্রীকে আদালতে পাঠানো হয়েছে জবানবন্দি প্রদান এবং ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্নের জন্য।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazartvsite-01713478536