বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের নীলনকশাকারীদের মুখোশ উন্মোচন করা প্রয়োজন : তথ্যমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের নীলনকশাকারীদের মুখোশ উন্মোচন করা প্রয়োজন : তথ্যমন্ত্রী

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, কমিশন গঠন করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যাকান্ডের নীলনকশার সাথে জড়িতদের মুখোশ উন্মোচন করা প্রয়োজন।
তিনি বলেন, ‘১৫ আগস্টের হত্যাকান্ডের সাথে জিয়াউর রহমানসহ যারা এই নীল নকশার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন, একটি কমিশন গঠন করে তাদের মুখোশ জাতির সামনে উন্মোচন করা প্রয়োজন। এটিই আজকে জনতার দাবি, জনগণের দাবি।’
তথ্যমন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে ক্লিনিক ভবনের সামনে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে তথ্য অধিদফতর আয়োজিত ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর দুর্লভ আলোকচিত্র প্রদর্শনী’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।
হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, দেশের মানুষ মনে করে যারা বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ড সামনে থেকে সংঘটিত করেছিলেন শুধু তাদের বিচারের মাধ্যমেই ন্যায় প্রতিষ্ঠা পুরোপুরি সম্ভবপর নয়। ন্যায় প্রতিষ্ঠা করতে হলে যারা এই হত্যাকান্ডের পেছনে নীল নকশা প্রণয়ন করেছে তাদেরও বিচার করতে হবে।’
বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের নীলনকশা প্রণয়নকারী হিসেবে জিয়াউর রহমানের নাম উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার সঙ্গে জড়িতদের ক্ষমতায় বসানো, ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ পাস করাই প্রমাণ করে যে, সবকিছুর সঙ্গে জিয়াউর রহমান জড়িত ছিলেন।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যকান্ডের সঙ্গে জিয়াউর রহমান যুক্ত ছিলেন, সেটি বেগম খালেদা জিয়া জানতেন কি-না, আমি জানি না। কিন্তু খালেদা জিয়া ও বিএনপির কর্মকান্ড প্রমাণ করে বঙ্গবন্ধুর হত্যাকান্ডের পরিপ্রেক্ষিতে যে রাজনৈতিক অপশক্তির অভ্যুদয় হয়েছে তার পুরোধা হচ্ছে বিএনপি।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশকে একটি উন্নত রাষ্ট্রে রূপান্তিত করার স্বপ্ন দেখেছিলেন। বঙ্গবন্ধুকে স্বাধীনতা পরবর্তী সাড়ে তিন বছরের মাথায় হত্যা করার কারণে তিনি সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করে যেতে পারেননি। এখন বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণের পথে অদম্য গতিতে এগিয়ে চলছে।
তিনি বলেন, বর্তমান সময়ে রাজনৈতিক অপশক্তি বাংলাদেশের অগ্রগতিকে পেছন থেকে টেনে ধরার চেষ্টা করছে। এই অপশক্তি হচ্ছে জঙ্গিগোষ্ঠীর পৃষ্ঠপোষক বিএনপি-জামায়াত। তারাই এখন গুজব ছড়াচ্ছে, তারাই সমাজে অস্থিরতা সৃষ্টির অপচেষ্টা চালাচ্ছে।
পরে মন্ত্রী ডিজিটাল ডিসপ্লেতে আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন এবং বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে আলোকচিত্র ও সেই সময়ের পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত বঙ্গবন্ধুর আলোকচিত্রসমূহ ঘুরে দেখেন।
অনুষ্ঠানে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, তথ্যসচিব আবদুল মালেক, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা সুরথ কুমার সরকারসহ মন্ত্রণালয় ও অধীন দফতরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

রিবেশকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করতে ডেঙ্গু প্রতিরোধ বিষয়ক সচেতনতা মূলক আলোচনা সভা ও বৃক্ষরোপণ কর্মসূচীর আয়োজন করেছে বৈলতলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ

২৪শে আগস্ট শনিবার সকাল ১১টায় জাফরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয় বৈলতলী বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয় ও জাফরাবাদ ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসায় ডেঙ্গু প্রতিরোধ বিষয়ক আলোচনা সভা, লিফলেট বিতরন ও বৃক্ষ বিতরন করা হয়। ৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রায় পাচঁশত চারাগাছ বিতরণ করা হয়।

এতে উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি খোরশেদুল আলম ইমতিয়াজ

বৈলতলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আজিজুল হক চৌধুরী রিকনের সভাপত্ত্বিতে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক জাহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বৈলতলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আনোয়ারুল মোস্তফা দুলাল।       

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বৈলতলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক দেবু দাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাহান সানি, দপ্তর সম্পাদক নোমান উদ্দীন রুবেল। এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা ওহিদুল ইসলাম বিপুল তালুকদার, মোঃ তৌহিদ, রোকন উদ্দীন, সাফায়াত হোসেন সবুজ, মোঃ জালাল, জয়া প্রমুখ।

বৈলতলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে ডেঙ্গু প্রতিরোধ সচেতনতা মূলক আলোচনা সভা ও বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত।

অারিফুজ্জামান অারিফ, বিশেষ প্রতিনিধি 
বাহ্মণবাড়িয়া:
গ্রীন ব্রাহ্মণবাড়িয়া’র আয়োজনে সরাইল সরকারি কলেজ প্রাঙ্গনে বিনামূল্যে গাছ বিতরণ অনুষ্ঠান এবং মোটিভেশনাল প্রোগ্রাম সফল ভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ঢাকা মহানগর শিক্ষা কমিটির সদস্য আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা রুম টু রিড এর আফজালুর রহমান রিপন এর বক্তব্য ও প্রাঞ্জল উপস্থাপনা অনুষ্ঠানে ভিন্ন মাত্রা যোগ করে।
প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সরাইল সরকারি কলেজের প্রিন্সিপাল শিক্ষাবিদ মৃধা আহমাদুল কামাল।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পিস ভিশন বাংলাদেণ এর সভাপতি, সরাইলের কৃতি সন্তান এড. শেখ জাহাঙ্গীর, সাধারন সম্পাদক,বিশিষ্ট সংগঠক, তিতাস বার্তার উপদেষ্টা শরীফ আহমেদ খান, সরাইল সরকারি কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক শহিদুল ইসলাম মামুন।
স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা শরিফ সিদ্দিক, বিশিষ্ট সংগঠক, এডমিন প্রাউড ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পরিচালক কোহিনুর আক্তার।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি মহিলা কলেজের মেধাবী ছাত্রী ও সংগঠক তাছলিমা নাছরিন, লস্কর পাপিয়া জান্নাত প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
“নিজে বাঁচি পরিবেশ বাচাঁই
চলো সবাই সবাই গাছ লাগাই”
এই শ্লোগান কে সামনে রেখে এ সংগঠনের উপজেলা পর্যায়ের ৮ম প্রোগ্রাম।
গ্রীণ ব্রাহ্মণবাড়িয়া হচ্ছে অনলাইন ও অফলাইন ভিত্তিক সেবামূলক, অব্যাবসায়িক ফেইসবুকভিত্তিক সংগঠন। যার মাধ্যমে বিনামূল্যে গাছ শেয়ারিং ও কেয়ারিং করে থাকে।

সংগঠনটি সরাইল সরকারি কলেজে ফুলের গাছ রোপনসহ ত্রিশজন শিক্ষার্থীকে বিনামূলে গাছ প্রদান করেছে।

গ্রীন ব্রাহ্মণবাড়িয়া’র আয়োজনে সরাইল সরকারি কলেজ প্রাঙ্গনে বিনামূল্যে গাছ বিতরণ অনুষ্ঠান

themesbazartvsite-01713478536