কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ভন্ড ফকিরের আস্তানা ভেঙ্গে দিয়েছে পুলিশ

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ভন্ড ফকিরের আস্তানা ভেঙ্গে দিয়েছে পুলিশ

সুজন কুমার কর্মকার, কুষ্টিয়া :কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ভন্ড ফকিরের আস্তানা ভেঙ্গে দিয়েছে পুলিশ। শুক্রবার দৈনিক আন্দোলনের বাজার পত্রিকায় ‘দৌলতপুরে ভন্ড ফকিরের আস্তানায় মাদক সেবীদের অবাঁধ বিচরণ : বাড়ছে সামাজিক অস্থিরতা’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হলে সকালে দৌলতপুর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ফকিরের আস্তানা ভেঙ্গে দেয়। এসময় আল আমিন নামে ওই ভন্ড ফকিরকে আস্তানা থেকে অন্যত্র সরিয়ে দেওয়া হয়। এদিকে ভন্ড ফকিরের আস্তানা ভেঙ্গে দেওয়ায় ওই এলাকার মুসল্লি ও সাধারণ জনমনে স্বস্তি ফিরেছে।
এলাকাবাসী জানান, দৌলতপুর উপজেলার ফিলিপনগর ইউনিয়নের গোলাবাড়ি গ্রামের পদ্মা নদীর পাড় ঘেষে হঠাৎ করেই কথিত এক ভন্ড ফকিরের আর্বিভাব হয়। রাতারাতি গড়ে তোলা হয় আস্তানা। সেখানে পিপড়ের লাইনের মত ভন্ড ভক্তদের সারি পড়ে যায়। মহামারী করোনা ভাইরাসের কারনে সামাজিক দূরত্ব বজায় ও জনসমাগম এড়িয়ে চলার সরকারী নির্দেশনা জারি করা হলেও ওই ফকিরের আস্তনায় এ বিধি নিষেধের কোনটিই মানা হচ্ছিলনা। সবসময়ই সেখানে মাস্কবিহীন নেশাখোর ভক্তদের পদচারনা চলছিল, সেখানে নিয়মিত বসানো হচ্ছিল গাঁজা সেবনের আসর। পবিত্র রমজান মাসে ভন্ড ফকিরের আস্তানায় অপবিত্র ও অশ্লীল কর্মকান্ড চলার কারনে এলাকাবাসীর মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছিল। এরই সূত্র ধরে ভন্ড ফকিরের আস্তানার খবর সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ ও প্রচার হলে প্রশাসনের টনক নড়ে। পরে দৌলতপুর থানা পুলিশ আস্তানায় অভিযান চালিয়ে তা ভেঙ্গে দেয়।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazartvsite-01713478536