ভালো নেই পাকিস্তান, লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা

ভালো নেই পাকিস্তান, লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা

অনলাইন ডেস্ক:করোনা সময়ে ভালো নেই পাকিস্তান। দেশটিতে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। শেষ পাওয়া তথ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৫০০। বিশ্বজুড়ে মহামারি নভেল করোনাভাইরাসে পাকিস্তানে এরই মধ্যে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

গত বুধবার প্রথম দু’জনের মৃত্যু হয়। আর আজ আরো একজনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। প্রথমে আক্রান্তের সংখ্যা কম থাকলেও আজ শুক্রবার পাকিস্তানে সব থেকে বেশি আক্রান্তের খবর মেলে। বৃহস্পতিবার দেশটির বালুচিস্তানে এক লাফে আক্রান্তের সংখ্যা ২৩ থেকে বেড়ে ৮১ হয়ে গেছে। একই অবস্থা পঞ্জাব প্রদেশেও। সেখানেও লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। ডন পত্রিকার রিপোর্ট অনুযায়ী, ওই প্রদেশে বৃহস্পতিবার আক্রান্তের সংখ্যা ৩৩ থেকে এক লাফে হয়ে যায় ৭৮। পাকিস্তানের সবচেয়ে খারাপ অবস্থা সিন্ধ প্রদেশের। আক্রান্ত ২৪৫ জন। খাইবার-পাখতুয়ানে আক্রান্ত ২৩ এবং পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের গিলগিয়ে আক্রান্ত ২৪। দেশটির রাজধানী ইসলামাবাদের পরিস্থিতি তুলনামূলকভাবে ভালো। সেখানে আক্রান্ত এখনো পর্যন্ত দু’জন।

এদিকে, করোনা ঠেকাতে পাকিস্তান দু’সপ্তাহের জন্য ভারত-পাকিস্তানের ওয়াঘা সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে। পাকিস্তান সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ইমরান খান সরকার সব রকমের প্রস্তুতি নিয়েছে করোনা মোকাবেলায়।

পশ্চিম পাকিস্তানে ইরান ও আফগানিস্তান সীমান্তও সিল করে দেওয়া হয়েছে। পাকিস্তান সরকারের পক্ষে প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ্য বিষয়ক পরামর্শদাতা জাফর মির্জা জানিয়েছেন, পাকিস্তানের চিকিৎসকরা চীনের চিকিৎসকদের থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন।

পাকিস্তানের ধর্মবিষয়ক মন্ত্রী নুর উল হক কোয়াদরি জানিয়েছেন, করোনা মোকাকেলায় হজ যাত্রা স্থগিত করার পাশাপাশি সব মসজিদে জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

ডেস্ক রিপোর্ট:ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলায় করোনাভাইরাস পরীক্ষা এবং লোকজনকে কোয়ারেন্টিনে নিয়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করে দাঙ্গায় জড়িয়েছে হিন্দু ও মুসলমান সম্প্রদায়। এ সময় দোকান, বাড়ি ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও বোমাবাজি করা হয়েছে।

বিবিসি বাংলার প্রতিবেদনে বরা হয়, গতকাল মঙ্গলবার দুপুর থেকে নতুন করে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়েছে। এর আগে গত রোববার প্রথম উত্তেজনা তৈরি হয়। তখন পুলিশ বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। এখন পর্যন্ত মোট ১১২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

হুগলির তেলেনিপাড়া এলাকায় কয়েকদিন আগে করোনাভাইরাস পরীক্ষার একটি শিবির করা হয়েছিল। পরীক্ষায় বেশ কয়েকজনের করোনা পজিটিভ আসে এবং ঘটনাচক্রে তারা সবাই মুসলমান।

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির সংসদ সদস্য অর্জুন সিং এ ঘটনার একটি ভিডিও পোস্ট করে লেখেন, ‘ক্যাম্পটা মুসলমান প্রধান এলাকায় হয়েছিল, তাই স্বাভাবিকভাবেই পজিটিভ এলে মুসলমানদেরই হবে। কিন্তু সেটা নিয়ে হিন্দুদের একাংশ মুসলমানদের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ ছড়াতে থাকে। মুসলমানরাই করোনা ছড়াচ্ছে বলে টিটকিরি দেওয়া হয়।’

কেউ যাতে গুজব ছড়িয়ে অশান্তি না বাড়াতে পারে, এ কারণে ওই অঞ্চলে ইন্টারনেট বন্ধ করা হয়েছে।

করোনা নিয়ে ভারতে হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা, বাড়ি ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও বোমাবাজি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazartvsite-01713478536