আমরা কিছু বিষয় এখন ধারাবাহিক মূল্যায়নে নিয়ে এসেছি: শিক্ষামন্ত্রী

আমরা কিছু বিষয় এখন ধারাবাহিক মূল্যায়নে নিয়ে এসেছি: শিক্ষামন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক:নতুন বছর থেকে জিপিএ ৫ থাকছে না উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, জিপিএ ৫-এর উন্মাদনা শিশুদের জীবনকে বিষিয়ে দিচ্ছে। এ থেকে বের হয়ে আসতে হবে। জিপিএ ৫ পেল কিনা, সেটি বড় করে না দেখে শিশু শিখল কিনা, তার জীবন আনন্দময় থাকল কিনা তা বড় করে দেখতে হবে সবাইকে। জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ উপলক্ষে মঙ্গলবার নিজ মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পাবলিক পরীক্ষাসহ সমাপনী পরীক্ষাগুলোর ফলে জিপিএ ৫ প্রাপ্তি নিয়ে মাতামাতি না করে শিক্ষার্থীদের প্রতিভা বিকশিত করতে সরকারকে সহযোগিতা করা উচিত। তিনি বলেন, আমার মনে হয়, আমরা যত কম জিপিএ ৫ নিয়ে কথা বলি, তত আমাদের শিক্ষার্থী ও শিক্ষা ব্যবস্থার জন্য ভালো। জিপিএ ৫-এর উন্মাদনা আমাদের শিশুদের শিক্ষাজীবনকে নিরানন্দময় তো করছেই, তার সঙ্গে বিষিয়ে দিচ্ছে। জিপিএ ৫ তো জীবনের একমাত্র লক্ষ্য হতে পারে না।

পাবলিক পরীক্ষার বিষয় কমানোর প্রসঙ্গ তুলে দীপু মনি বলেন, আমরা কিছু বিষয় এখন ধারাবাহিক মূল্যায়নে নিয়ে এসেছি। একসময় ধারাবাহিক মূল্যায়নে বাচ্চারা সে কাজগুলো না করেই নম্বর পেয়ে যেত। এখন আর সে সুযোগ নেই। এখন বিষয়টি পাইলটিং হয়ে গেছে। বাচ্চারা তাদের প্রতিটি কাজ প্রতিদিন করতে হবে এবং শিক্ষকদের সেগুলো ডিজিটালি ইনপুট দিয়ে দিতে হবে। এখানে ভুল কিছু করার সুযোগ নেই।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পাবলিক পরীক্ষা ছাড়া সমাপনী পরীক্ষাগুলোতে পুরো গ্রেডিং সিস্টেমটা তুলে দিয়ে কীভাবে মূল্যায়ন করতে পারি, সে বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীও দিকনির্দেশনা দিয়েছেন, সেটি নিয়ে আমরা কাজ করছি।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazartvsite-01713478536