আসুন সবাই মিলে মাদককে না বলি আগামী প্রজন্মের জন্য মাদক মুক্ত সমাজ গড়ি

আসুন সবাই মিলে মাদককে না বলি আগামী প্রজন্মের জন্য মাদক মুক্ত সমাজ গড়ি

মোঃ শফিকুর রহমান, লোহাগাড়া উপজেলা প্রতিনিধি:
আমরা মাদক মুক্ত সমাজ গড়তে চাই আমরা সকলেই জানি সামাজিক এবং পারিবারিক সচেতনতাই পারে মাদক মুক্ত সমাজ গড়ে তুলতে ” আমাদের আগামী প্রজন্মকে ইয়াবা মদ গাজা এক কথায় মাদকমুক্ত করতে হলে যার যার অবস্থান থেকে এগিয়ে আসতে হবে । নিজের সমাজ কে নিজের গ্রামকে মাদকমুক্ত করতে হলে প্রশাসনের পাশাপাশি জন প্রতিনিধিদেরকে মাদক নিয়ন্ত্রণের ব্যাপারে সর্বাত্মক সহযােগিতা করতে হবে।আমরা সবাই দল-মত ধর্ম,বর্ণ নির্বিশেষে মাদকের বিরুদ্ধে প্রচার প্রচারণার শক্তির মাধ্যমে যুদ্ধ ঘােষণা করতে হবে।আসুন সবাই মিলে মাদকের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘােষণা করে,আগামী প্রজন্মের জন্য সুন্দর বাসযােগ্য সমাজ তৈরি করি।যেখানে থাকবেনা মাদক নামক ক্যান্সারের জীবাণু মাদক একটি সমাজ এর জন্য ক্যান্সারের মতাে ভাইরাস আসুন আমরা সকলে।মিলে এই ভাইরাস থেকে আমাদের আগামী প্রজন্মকে নিরাপদ রাখার চেষ্টা করি।আমাদের একটু সচেতনতাই পারে সমাজ থেকে মাদক নামক ক্যান্সার শব্দটি সরিয়ে দিতে সে জন্য অবশ্যই আমাদেরকে অঙ্গীকারবদ্ধ হতে হবে৷ মাদক নামক ক্যান্সারের জীবাণু টির যদি আমরা সমাজ থেকে ব্যক্তিগতভাবে বা সামাজিক ভাবে নির্মল করতে না পারি তাহলে আমরা জন প্রতিনিধির সহযােগিতা নিতে পারি এমনকি প্রশাসনকে ও আমরা মাদক নির্মূলের ক্ষেত্রে সহযােগিতা করতে পারি।সমাজের যে যুবকেরা আমাদের আগামী দিনের স্বপ্ন দ্রষ্টা তারাই না বুঝে না জেনে মাদক নামক মৃত্যুকে আলিঙ্গন করেছে।তারা নিজেরাই নিজেদের সুন্দর ভবিষ্যৎ কে ধ্বংস করে দিচ্ছে।আমাদের যুব সমাজকে যদি আমরা মাদকের করাল গ্রাস থেকে রক্ষা করতে নাপারি তাহলে পারিবারিকভাবে আমরা ক্ষতিগ্রস্ত হবাে সামাজিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবাে ক্ষতিগ্রস্ত হবে আমাদের রাষ্ট্র তাই মাদকের ডিলার ব্যবসায়ী মাদকসেবী তাদের সাথে কোন কম্প্রোমাইজ নয় বরং তাদের ব্যাপারে প্রশাসনকে সর্বাত্মক সহযােগিতা করা আমাদের সকলের নৈতিক দায়িত্ব।তাই আসুন মাদককে সবাই না বলি নিজের পরিবার নিজের সমাজকে মাদক মুক্ত রাখি এটাই হােক।আমাদের সকলের অঙ্গীকার এটাই হােক আমাদের সকলের দীপ্ত শপথ মােই কচ্ছ আমরা ইচ মােট কথা হচ্ছে আমরা ইচ্ছা করলেই সমাজকে বদলে দিতে পারি শুধু দরকার আমাদের সদিচ্ছা।

প্রচারেঃ আধুনগর সমাজ কল্যাণ পরিষদ
সহযোগিতায়ঃ মােঃ শফিকুর রহমান,
সাধারণ সম্পাদক
আধুনগর সমাজ কল্যাণ পরিষদ।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

বুলবুল আহমেদ নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার পৌর শহরের মালগুদাম এলাকা থেকে সিএনজি সিলিন্ডার ভর্তি ট্রাক জব্দ করেছেন আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী অফিসার। সান্তাহার পৌর শহরের উম্মুক্ত জায়গায় ঝুকিঁপূর্ন ভাবে পাইপের মাধ্যমে গ্যাস কেনাবেচা হচ্ছে এমন অভিযোগের ভিত্তিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুল্লাহ বিন রশিদ সোমবার ভোরে সেখানে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় অবৈধ ভাবে গ্যাস বিক্রির সাথে জড়িত ব্যক্তিরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়।
অবৈধ ভাবে গ্যাস বিক্রি বন্ধের জন্য গত ৫ সেপ্টেম্বর আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন সান্তাহার মালগুদাম এলাকার ব্যবসায়ি ও পরিবহন শ্রমিক সংগঠন। অভিযোগে জানা যায়, সান্তাহার পৌর এলাকার মিজানুর রহমান দীর্ঘ দিন ধরে গভীর রাতে ট্রাকে সিলিন্ডার রেখে বিভিন্ন যানবাহনে অবৈধ ভাবে গ্যাস বিক্রি করে আসছেন। বগুড়ার সিএনজি ষ্টেশন থেকে ট্রাকে করে গ্যাস সিলিন্ডার আনা হয়। একটি ট্রাকে বড় আকারের ২০ থেকে ৩০ টি সিলিন্ডার থাকে। শহর মানুষ শুন্য হলে গভীর রাতে ট্রাকের সিলিন্ডার থেকে পাইপের মাধ্যমে সিএনজি, প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাসসহ অন্যান্য যানবাহনে গ্যাস বিক্রি হয়। দুরত্ব ও খরচ এড়াতে যানবাহনের মালিকরা ট্রাক থেকে গ্যাস সংগ্রহ করে থাকেন। সান্তাহার শহরের ব্যবসায়ি ও পরিবহন শ্রমিক সংগঠনের অভিযোগের ভিত্তিতে আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুল্লাহ বিন রশিদ সোমবার ভোরে অভিযান পরিচালনা করে ১২টি গ্যাস ভর্তি সিলিন্ডার সহ একটি ট্রাক জব্দ করেন। এ ব্যাপারে আদমদীঘি ইউএনও আবদুল্লাহ বিন রশিদ জানান, ট্রাকসহ সিলিন্ডার থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে এবং বিষয়টি বগুড়া পরিবেশ অধিদপ্তরকে অবহিত করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় নিয়মিত মামলা দায়ের করা হবে।

বগুড়ার সান্তাহারে গ্যাস সিলিন্ডার ভর্তি ট্রাক জব্দ করলেন ইউএনও

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধিঃ
নীলফামারীর সৈয়দপুরে ট্রলির সাথে মোটর সাইকেলের মুখোমুখী সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে মোটর সাইকেলের চালক নিহত হয়েছে।  তার নাম সুমন মোহাম্মদ তুষার (৩৫)। তিনি দিনাজপুরের পার্বতীপুরের গুলপাড়ার জুলফিকার আলীর পুত্র। পার্বতীপুর স্টেশনে বাংলাদেশ রেলওয়ের সহকারী লোকোমাস্টার (সহকারী ট্রেন চালক) হিসেবে কর্মরত।
পুলিশ জানায়, ১৬ আগস্ট  রোববার রাত আনুমানিক ৮টার দিকে মোটর সাইকেল যোগে সৈয়দপুর থেকে পার্বতীপুরে যাওয়ার সময় সৈয়দপুর উপজেলার সীমানা এলাকার চৌমুহনী বাজারে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রলির সাথে মুখোমুখী সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে মারা যায় সুমন।
এ সময় মোটরসাইকেলে থাকা বোন ও ভাগিনী গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা আহতদের সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করায়।৷

সৈয়দপুরে ট্রলি-মোটরসাইকেল মুখোমুখী সংঘর্ষে সহকারী লোকো মাস্টার সুমন নিহত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazartvsite-01713478536