অলক কাপালির সঙ্গে মিল বাবর আজমের

অলক কাপালির সঙ্গে মিল বাবর আজমের

স্পোর্টস ডেস্ক:একটা সময়ে বাংলাদেশ দলের নিয়মিত সদস্য ছিলেন অলক কাপালি। বাংলাদেশ দলের বেশ কিছু ম্যাচ জয়ের নায়কও তিনি। ২০০২ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত জাতীয় দলে দাপটের সঙ্গেই ক্রিকেট খেলেছেন এ অলরাউন্ডার।

২০১১ সালের নভেম্বরের পর থেকে জাতীয় দলে ‘সাবেক’ হয়ে গেছেন এ লেগ স্পিনার। আট বছর ধরে জাতীয় দলের বাইরে থাকা অলক কাপালিকে আবারও খবরে নিয়ে আসলেন বাবর আজম।

পাকিস্তান ক্রিকেট দলের এই সময়ের অন্যতম সেরা এ ব্যাটসম্যান সোমবার শ্রীলংকার বিপক্ষে করাচি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সেঞ্চুরি করেছেন।

এদিন ১০৫ বলে ৮টি চার ও চারটি ছক্কায় ১১৫ রান করার মধ্য দিয়ে করাচি জাতীয় স্টেডিয়ামের অনার্স বোর্ডে স্থান করে নেন বাবর আজম। তিনি করাচি স্টেডিয়ামে ওয়ানডে ক্রিকেটে ৩০তম সেঞ্চুরি করে।

বাবর আজমের আগে ২০০৮ সালে বাংলাদেশ জাতীয় দলের অলরাউন্ডার অলক কাপালি এশিয়া কাপের ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে ৯৬ বলে ১০টি চার ও ৫টি ছক্কায় ১১৫ রানের ইনিংস খেলেন। ক্যারিয়ারে ৬৯টি ওয়ানডে ম্যাচে একটি মাত্র সেঞ্চুরি করা কাপালির নামটি আজও করাচি স্টেডিয়ামের অনার্স বোর্ডে স্বর্ণাক্ষরে লেখা রয়েছে।

সোমবার শ্রীলংকার বিপক্ষে ক্যারিয়ারের ৭১তম ওয়ানডেতে ১১তম সেঞ্চুরি করেন বাবর আজম। আর এই সেঞ্চুরির করার মধ্য দিয়ে বিরাট কোহলির মতো তারকা ব্যাটসম্যানকে ছাড়িয়ে যান বাবর।

ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি ৮২তম ম্যাচে ১১টি সেঞ্চুরি হাঁকান। আর দক্ষিণ আফ্রিকার তারকা ব্যাটসম্যান হাশিম আমলা মাত্র ৬৪ ম্যাচ খেলে দ্রুততম ১১টি সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ছিলেন।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বুলবুল আহমেদ নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার পৌর শহরের মালগুদাম এলাকা থেকে সিএনজি সিলিন্ডার ভর্তি ট্রাক জব্দ করেছেন আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী অফিসার। সান্তাহার পৌর শহরের উম্মুক্ত জায়গায় ঝুকিঁপূর্ন ভাবে পাইপের মাধ্যমে গ্যাস কেনাবেচা হচ্ছে এমন অভিযোগের ভিত্তিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুল্লাহ বিন রশিদ সোমবার ভোরে সেখানে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় অবৈধ ভাবে গ্যাস বিক্রির সাথে জড়িত ব্যক্তিরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়।
অবৈধ ভাবে গ্যাস বিক্রি বন্ধের জন্য গত ৫ সেপ্টেম্বর আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন সান্তাহার মালগুদাম এলাকার ব্যবসায়ি ও পরিবহন শ্রমিক সংগঠন। অভিযোগে জানা যায়, সান্তাহার পৌর এলাকার মিজানুর রহমান দীর্ঘ দিন ধরে গভীর রাতে ট্রাকে সিলিন্ডার রেখে বিভিন্ন যানবাহনে অবৈধ ভাবে গ্যাস বিক্রি করে আসছেন। বগুড়ার সিএনজি ষ্টেশন থেকে ট্রাকে করে গ্যাস সিলিন্ডার আনা হয়। একটি ট্রাকে বড় আকারের ২০ থেকে ৩০ টি সিলিন্ডার থাকে। শহর মানুষ শুন্য হলে গভীর রাতে ট্রাকের সিলিন্ডার থেকে পাইপের মাধ্যমে সিএনজি, প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাসসহ অন্যান্য যানবাহনে গ্যাস বিক্রি হয়। দুরত্ব ও খরচ এড়াতে যানবাহনের মালিকরা ট্রাক থেকে গ্যাস সংগ্রহ করে থাকেন। সান্তাহার শহরের ব্যবসায়ি ও পরিবহন শ্রমিক সংগঠনের অভিযোগের ভিত্তিতে আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুল্লাহ বিন রশিদ সোমবার ভোরে অভিযান পরিচালনা করে ১২টি গ্যাস ভর্তি সিলিন্ডার সহ একটি ট্রাক জব্দ করেন। এ ব্যাপারে আদমদীঘি ইউএনও আবদুল্লাহ বিন রশিদ জানান, ট্রাকসহ সিলিন্ডার থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে এবং বিষয়টি বগুড়া পরিবেশ অধিদপ্তরকে অবহিত করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় নিয়মিত মামলা দায়ের করা হবে।

বগুড়ার সান্তাহারে গ্যাস সিলিন্ডার ভর্তি ট্রাক জব্দ করলেন ইউএনও

themesbazartvsite-01713478536