ডেঙ্গু: রক্তে প্লাটিলেট বাড়ায় যেসব খাবার!

এবছর ডেঙ্গু রোগ মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। এপর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়েছে। ডেঙ্গুর কারণে মানুষের শরীরের প্লাটিলেট কমে যায়। স্বাভাবিক মানুষের রক্তে প্লাটিলেটের হার প্রতি ১০০ মিলিলিটারে দেড় লাখ থেকে চার লাখ। এই পরিমাপের চাইতে প্লাটিলেটের মাত্রা কমে গেলে রক্তক্ষরণের ঝুঁকি দেখা দেয়। ২০ হাজারের নিচে প্লাটিলেটের সংখ্যা নেমে এলে কোনো প্রকার আঘাত ছাড়াই রক্তক্ষরণ হতে পারে। আসুন জেনে নেই যেসব খাবার প্লাটিলেট বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

পেঁপে ও পেঁপে পাতা: পেঁপে খুব দ্রুত রক্তের প্লাটিলেটের পরিমাণ বাড়াতে সক্ষম। মালয়েশিয়ার এশিয়ান ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলোজির একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে, ডেঙ্গু জ্বরের কারণে রক্তে প্লাটিলেটের পরিমাণ কমে গেলে পেঁপে পাতার রস তা দ্রুত বৃদ্ধি করে। রক্ত প্লাটিলেটের পরিমাণ কমে গেলে প্রতিদিন পেঁপে পাতার রস কিংবা পাকা পেঁপের জুস পান করুন।

মিষ্টি কুমড়া ও কুমড়া বীজ: মিষ্টি কুমড়া রক্তের প্লাটিলেট তৈরি করতে বেশ কার্যকরী। এ ছাড়াও মিষ্টি কুমড়াতে আছে ভিটামিন ‘এ’ যা প্লাটিলেট তৈরি করতে সহায়তা করে। তাই রক্তের প্লাটিলেটের সংখ্যা বাড়াতে নিয়মিত মিষ্টি কুমড়া এবং এর বীজ খেলে উপকার পাওয়া যায়।

লেবুর রস: লেবুর রসে প্রচুর ভিটামিন ‘সি’ থাকে। ভিটামিন সি রক্তে প্লাটিলেট বাড়াতে সহায়তা করে। এ ছাড়া ভিটামিন ‘সি’ শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়িয়ে তোলে। ফলে প্লাটিলেট ধ্বংস হওয়া থেকেও রক্ষা পায়।

আমলকি: আমলকিতেও আছে প্রচুর ভিটামিন ‘সি’। এ ছাড়া আমলকিতে প্রচুর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট আছে। ফলে আমলকি খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে এবং প্লাটিলেট ধ্বংস হওয়া থেকে রক্ষা পায়।

অ্যালোভেরার রস: অ্যালোভেরা রক্তকে বিশুদ্ধ করে। রক্তের যেকোনো সংক্রমণ দূর করতেও অ্যালোভেরা উপকারী। তাই নিয়মিত অ্যালোভেরার জুস পান করলে রক্তের প্লাটিলেটের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়।

ডালিম: ডালিম রক্তে প্লাটিলেটের পরিমাণ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এতে প্রচুর আয়রন রয়েছে যা প্লাটিলেট বৃদ্ধি করে। প্রতিদিন ১৫০ মিলিলিটার ডালিমের জুস দুই সপ্তাহ পান করুন। ডালিমের রসের ভিটামিন দুর্বলতা দূর করে কাজে শক্তি দেবে। সূত্র: স্টাইল ক্রেজডটকম

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

রিবেশকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করতে ডেঙ্গু প্রতিরোধ বিষয়ক সচেতনতা মূলক আলোচনা সভা ও বৃক্ষরোপণ কর্মসূচীর আয়োজন করেছে বৈলতলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ

২৪শে আগস্ট শনিবার সকাল ১১টায় জাফরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয় বৈলতলী বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয় ও জাফরাবাদ ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসায় ডেঙ্গু প্রতিরোধ বিষয়ক আলোচনা সভা, লিফলেট বিতরন ও বৃক্ষ বিতরন করা হয়। ৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রায় পাচঁশত চারাগাছ বিতরণ করা হয়।

এতে উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি খোরশেদুল আলম ইমতিয়াজ

বৈলতলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আজিজুল হক চৌধুরী রিকনের সভাপত্ত্বিতে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক জাহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বৈলতলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আনোয়ারুল মোস্তফা দুলাল।       

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বৈলতলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক দেবু দাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাহান সানি, দপ্তর সম্পাদক নোমান উদ্দীন রুবেল। এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা ওহিদুল ইসলাম বিপুল তালুকদার, মোঃ তৌহিদ, রোকন উদ্দীন, সাফায়াত হোসেন সবুজ, মোঃ জালাল, জয়া প্রমুখ।

বৈলতলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে ডেঙ্গু প্রতিরোধ সচেতনতা মূলক আলোচনা সভা ও বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত।

অারিফুজ্জামান অারিফ, বিশেষ প্রতিনিধি 
বাহ্মণবাড়িয়া:
গ্রীন ব্রাহ্মণবাড়িয়া’র আয়োজনে সরাইল সরকারি কলেজ প্রাঙ্গনে বিনামূল্যে গাছ বিতরণ অনুষ্ঠান এবং মোটিভেশনাল প্রোগ্রাম সফল ভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ঢাকা মহানগর শিক্ষা কমিটির সদস্য আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা রুম টু রিড এর আফজালুর রহমান রিপন এর বক্তব্য ও প্রাঞ্জল উপস্থাপনা অনুষ্ঠানে ভিন্ন মাত্রা যোগ করে।
প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সরাইল সরকারি কলেজের প্রিন্সিপাল শিক্ষাবিদ মৃধা আহমাদুল কামাল।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পিস ভিশন বাংলাদেণ এর সভাপতি, সরাইলের কৃতি সন্তান এড. শেখ জাহাঙ্গীর, সাধারন সম্পাদক,বিশিষ্ট সংগঠক, তিতাস বার্তার উপদেষ্টা শরীফ আহমেদ খান, সরাইল সরকারি কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক শহিদুল ইসলাম মামুন।
স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা শরিফ সিদ্দিক, বিশিষ্ট সংগঠক, এডমিন প্রাউড ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পরিচালক কোহিনুর আক্তার।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি মহিলা কলেজের মেধাবী ছাত্রী ও সংগঠক তাছলিমা নাছরিন, লস্কর পাপিয়া জান্নাত প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
“নিজে বাঁচি পরিবেশ বাচাঁই
চলো সবাই সবাই গাছ লাগাই”
এই শ্লোগান কে সামনে রেখে এ সংগঠনের উপজেলা পর্যায়ের ৮ম প্রোগ্রাম।
গ্রীণ ব্রাহ্মণবাড়িয়া হচ্ছে অনলাইন ও অফলাইন ভিত্তিক সেবামূলক, অব্যাবসায়িক ফেইসবুকভিত্তিক সংগঠন। যার মাধ্যমে বিনামূল্যে গাছ শেয়ারিং ও কেয়ারিং করে থাকে।

সংগঠনটি সরাইল সরকারি কলেজে ফুলের গাছ রোপনসহ ত্রিশজন শিক্ষার্থীকে বিনামূলে গাছ প্রদান করেছে।

গ্রীন ব্রাহ্মণবাড়িয়া’র আয়োজনে সরাইল সরকারি কলেজ প্রাঙ্গনে বিনামূল্যে গাছ বিতরণ অনুষ্ঠান

themesbazartvsite-01713478536