এস আলম গ্রুপের সৌজন্যে ৩০ টি ফগার মেশিন, ৮০ টি স্প্রে মেশিন বিতরণ করেন জেলা প্রশাসক

এস আলম গ্রুপের সৌজন্যে ৩০ টি ফগার মেশিন, ৮০ টি স্প্রে মেশিন বিতরণ করেন জেলা প্রশাসক

নিজস্ব প্রতিবেদক: – ডেঙ্গু প্রতিরোধে জেলা প্রশাসন চট্টগ্রামের উদ্যোগে এস আলম গ্রুপের সৌজন্যে শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০ টায় চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে চট্টগ্রামের সকল উপজেলার জন্য মশকনিধন সরঞ্জামাদি উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের হাতে তুলে দেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন। ডেঙ্গু প্রতিরোধে বিদ্যমান সরঞ্জামাদির মাধ্যমে মশক নিধন কার্যক্রম চলমান রয়েছে, এরসাথে আরো অধিক সরঞ্জামাদি যুক্ত হওয়ায় চলমান ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আরো সহজতর হবে বলে উল্লেখ করেন জেলা প্রশাসক৷ জেলা প্রশাসনের অব্যাহত কার্যক্রম জেলার সব গুলো উপজেলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের তত্বাবধানে ডেঙ্গু প্রতিরোধে মশক নিধন ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। এস আলম গ্রুপের সৌজন্যে ৩০ টি ফগার মেশিন, ৮০ টি স্প্রে মেশিন, প্রয়োজনীয় কীট বিতরণ করেন জেলা প্রশাসক জনাব মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন। জেলা প্রশাসনের গৃহীত নানামুখী উদ্যোগ যেমন জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য লিফলেট বিতরণ,নিয়মিত পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালনা, নিজ নিজ আঙিনা পরিষ্কার রাখার কার্যকরী উদ্যোগ ডেঙ্গু পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। ” এসব মেশিন ফেলে রাখা যাবে না, নিয়মিত মশক নিধন কার্যক্রমে এর ব্যবহার সচল রাখতে হবে ” বলে নির্দেশ দেন জেলা প্রশাসক। ফগার মেশিন, স্প্রে মেশিন ও কীট এর সঠিক ব্যবহার সম্পর্কে সম্যক ধারনা প্রদান করতে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। উপজেলা থেকে আগত যেসকল ব্যক্তি এই মেশিন ব্যবহার করবে তাদেরকে হাতে কলমে সার্কিট হাউসে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকগণ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার ( ভূমি)গণ, এসআল গ্রুপের প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আকিজ উদ্দিন জেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তা এবং প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

অনলাইন ডেস্ক:পুলিশকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অপরাধ নির্মূল ও সমসাময়িক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় পুলিশকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, অপরাধের ধরণ প্রতিনিয়ত পরিবর্তিত হচ্ছে।

গতানুগতিক অপরাধের পাশাপাশি সাইবার ক্রাইম, মানিলন্ডারিং, মানবপাচার ইত্যাদি বৈশ্বিক অপরাধ সংগঠিত হচ্ছে। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকের মতো অশুভ সামাজিক ব্যাধি। জঙ্গিবাদ দমনে বাংলাদেশ পুলিশের অব্যাহত সাফল্য শুধু দেশেই নয়, আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়েছে।

রোববার দুপুরে রাজশাহীর সারদায় বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে ৩৬তম বিসিএস ব্যাচের শিক্ষানবিশ সহকারী পুলিশ সুপারদের প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তিনি এ নির্দেশ দেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, জনগণের মনে পুলিশ সম্পর্কে যেন অমূলক ভীতি না থাকে সেজন্য জনগণের সঙ্গে নিবিড় সম্পর্ক গড়ে তুলতে হবে। সমাজের নারী, শিশু ও প্রবীণদের প্রতি সংবেদনশীল আচরণ করতে হবে। সমাজ থেকে অপরাধ নির্মূলে জনসম্পৃক্ততার মাধ্যমে জনবান্ধব পুলিশ গঠনে আপনাদের অগ্রপথিকের ভূমিকা পালন করতে হবে। পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় জনগণের মৌলিক অধিকার, মানবাধিকার ও আইনের শাসনকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিতে পুলিশ সদস্যদের প্রতি আহবান জানান তিনি।

সকাল সাড়ে ১০টায় বিশেষ হেলিকপ্টারযোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে পৌঁছান। এসময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ও পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী তাকে স্বাগত জানান। এরপর প্রধানমন্ত্রী মঞ্চে গিয়ে নবীন পুলিশদের সশস্ত্র সালাম গ্রহণ করেন ও খোলা জিপে চড়ে নবীন পুলিশ কর্মকর্তাদের সমাপনী কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করেন। এরপর প্রশিক্ষণের সময় বিভিন্ন বিষয়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনকারী সহকারী পুলিশ সুপারদের মধ্যে ট্রফি বিতরণ করেন তিনি।

পুলিশকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazartvsite-01713478536