ব্রাহ্মণবাড়িয়া মুক্ত দিবস উপলক্ষে সাহিত্য একাডেমির নাটক ও আবৃত্তি পরিবেশন।

Al amin Islam
প্রকাশিত ডিসেম্বর ৮, ২০২১
ব্রাহ্মণবাড়িয়া মুক্ত দিবস উপলক্ষে সাহিত্য একাডেমির নাটক ও আবৃত্তি পরিবেশন।
Spread the love

মো.আল আমিন ব্রাহ্মণবাড়িয়াঃ
আজ ৮ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়া পাক হানাদার মুক্ত দিবস উপলক্ষে সাহিত্য একাডেমি নাটক ও আবৃত্তি পরিবেশন করেছে।

বুধবার বিকাল সাড়ে তিনটায় পৌর শহরের ভাদুঘর বাজারের বটতলায় উৎসুক জনতার উপস্থিতিতে সোহেল আহাদের গ্রন্থনা ও নির্দেশনায় স্বাধীনতার মিছিল বৃন্দ আবৃত্তি ও  আহমদ আল মামুন রচিত নাটক ক্যামেরা প্রদর্শন করা হয়।

আবৃত্তি ও নাটকে অংশগ্রহণ করেন জামিনুর রহমান জামিল, নাঈম রহমান, নুসরাত জাহান বুশরা, রিপন দেবনাথ,  শিফা চৌধুরী, সৈকত হোসেন, নুসরাত জাহান জেরিন,  এহতেশাম মাহদী, রোকসানা রহমান তৃপ্তি, সাব্বির আহমেদ প্রমূখ। নাটক শেষে ভাদুঘর বাজারের দর্শকের পক্ষ থেকে সাহিত্য একাডেমির সবাইকে অভিনন্দন জানান কৃষকলীগের সভাপতি মো. হাবিবুর রহমান।

৮ ডিসেম্বর মুক্ত দিবসে সাহিত্য একাডেমির সভাপতি কবি জয়দুল হোসেন বলেন, ১৯৭১ সনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া মুক্ত হওয়ার আগের দিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর ছেড়ে যাওয়ার সময় পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ব্রাহ্মণবাড়িয়া কলেজ হোস্টেল ও অন্নদা স্কুলের বোডিংসহ বিভিন্ন রেশন গুদামে আগুন লাগিয়ে  দেয়। ৭ ডিসেম্বরের মধ্যে তারা ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর ত্যাগ করে। ৮ ডিসেম্বর সকালের মধ্যে মুক্তিবাহিনী ও মিত্রবাহিনী শহরে প্রবেশ করে। সাধারণ মানুষ জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে মুক্তি বাহিনীকে অভিনন্দন জানায়। ৮ ডিসেম্বর সকালে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করেন মুক্তিযুদ্ধের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় কাউন্সিলের চেয়ারম্যান জহুর আহমদ চৌধুরী। এ সময় এডভোকেট আলী আজম ভূইয়াসহ স্বতঃস্ফূর্ত জনগণ উপস্থিত ছিলেন।